নড়াইলে চালককে কুপিয়ে বেঁধে রেখে ইজিবাইক ছিনতাই

44

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলে চালককে কুপিয়ে ও মাধর করে কবরস্থানে বেঁধে ইজিবাইক ছিনিয়ে নিয়েছে ছিনতাইকারীরা। স্থানীয় লোকজন হতদরিদ্র ইজিবাইক চালক বলাই সরকারকে (৪৫) উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
বুধবার রাত ১০টার দিকে নড়াইল সদর উপজেলার মাইজপাড়া ইউনিয়নের আড়ংগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
আহত বলাই সরকার বলেন, ‘‘বুধবার রাতে নড়াইল শহর হতে ইজিবাইক নিয়ে নিজগ্রাম নড়াইলের সীমান্তবর্তী মাগুরা জেলার গঙ্গারামপুর গ্রামে যাচ্ছিলাম। পথিমধ্যে মাইজপাড়া ইউনিয়নের রামেশ^রপুর (আড়ংগাছা) বড়খালের কাছে পৌঁছালে সেখানে দাড়িয়ে থাকা ৩/৪ লোক আমাকে থামিয়ে মারধর শুরু করে। এসময় আমাকে নিয়ে তারা আড়ংগাছা কবরস্থানে মুখের মধ্যে কাপড় দিয়ে বেঁধে রেখে গাড়ি নিয়ে চলে যায়। আমার চিৎকারে গ্রামের লোকজন এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে আগুন চালিয়ে ও গরম কাপড় গায়ে দিয়ে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।
এসময় তিনি কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, ‘বহু কষ্ট করে ইজিবাইকটি কিনেছি। আমার ছোট দুটি সন্তান ও স্ত্রী নিয়ে চার জনের সংসার। আশা সমিতির থেকে ২৫ হাজার টাকার ঋন নিয়ে, ২৫হাজার টাকা কর্জ করে, আমার ভ্যান বিক্রি করে ও আমার যা যা ছিল বিক্রি করে ১লাখ ৫৫ হাজার টাকা দিয়ে যশোর থেকে ৩ মাস আগে ইজিবাইকটি কিনেছি। সারাজীবন পরের বাড়ি কাজ করে অনেক কষ্ট করে বড় হয়েছি। আমার সব কিছুই শেষ হয়ে গেলো। আমার কাছে থাকা দেড় হাজার টাকা ও আমার মোবাইলটাও নিয়ে গেছে। আজ (বৃহস্পতিবার) আমার আশা সমিতির কিস্তি দেওয়ার দিন ছিল। আমি এখন কি করবো জানিনা।’’
নড়াইল সদর হাসপাতালের চিকিৎসক সুজল কুমার বকশী বলেন, আহত বলাই সরকারে মাথায় আঘাত ও শরীরে মারধরের চিহ্ন রয়েছে। হাসপাতাল থেকে যথাসাধ্য চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। আশা করি দ্রুত সুস্থ্য হয়ে উঠবেন।
নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইলিয়াস হোসেন পিপিএম বলেন, ‘‘ এ ধরনের কোন খবর এখনও জানা নেই। তবে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে ।’’