নড়াইলে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন

0
16
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। ভোট গণনা শুরু হয়েছে। ভোট গ্রহণ সময়ে নির্বাচন আচারণবিধিতে ১০জন আটক হয়। এর মধ্যে আওয়ামী সমর্থিত ৮জন, ১জন বিএনপি অন্য একজন সাধারণ ভোটার। এছাড়া নড়াইল দু’টি আসনে কোন সহিংসতা ছাড়াই নির্বাচন শেষ হয়। এখন অধির আগহে ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছে উৎসুক জনতা।

সকাল সাড়ে ৭টায় মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা শহরের আলাদাৎপুর মামার বাসা হতে বেরিয়ে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে এসে নিজ কেন্দ্রে ভোট দেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক নড়াইল-২ আসনের আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা।

রবিবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা পৌনে একটার দিকে নড়াইল সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে মাশরাফি দম্পতি তাদের ভোট প্রদান করেন।

ভোট শেষে সাংবাদিকদের কাছে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘আমি বরাবরই দেরিতে ভোট দেই। কিন্তু এবার আপনাদের (সাংবাদিকদের) অনুরোধে একটু আগেই চলে এলাম। সকাল থেকে মাইজপাড়া, শাহাবাদ, হবখালী, পৌরসভার বিভিন্ন এলাকার অন্তত ৩৫টি কেন্দ্র ঘুরেছি। আশা করি ভোটারদের ভালবাসায় ফলাফল ভাল হবে।’
এাশরাফির ভোটদানকালে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নিলয় রায় বাধনসহ অঙ্গ সংগঠনের অন্রান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নড়াইল-২ আসনে মাশরাফির প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী রয়েছেন বিএনপি সমর্থিত এনপিপির চেয়ারম্যান ড. এজেড এম ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ইসলামী আন্দোলনের (পাখা) ডা. এসএম নাছির উদ্দিনসহসহ ৬ জন।

অবশ্য ইতিমধ্যে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এ্যাডভোকেট ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, এনপিপি (ছালু গ্রুপ) মনিরুল ইসলাম এর আগেই মাশরাফিকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ান।

এদিকে ভোট গ্রহণ চলাকালিন বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী ডা. এসএম নাছির উদ্দিন কোন সমর্থকদের কোথায়ও দেখা যাইনি।

নড়াইল ও লোহাগড়া পৌরসভাসহ এ আসনের অধীনে সদর উপজেলায় আটটি ইউনিয়ন এবং লোহাগড়ার ১২টি ইউনিয়ন নিয়ে নড়াইল-২ আসন গঠিত। এই আসনে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ১৭ হাজার ৫১১ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৬০ হাজার ৬২৪ এবং পুরষ ভোটার ১ লাখ ৫৬ হাজার ৮৮৭ জন। নড়াইল-২ আসনে ১৪০টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩৬টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত করেন প্রশাসন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here