নড়াইলে ২০ দলীয় জোটের নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাংচুরের অভিযোগ

30

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইল-২ আসনে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী এনপিপির কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারমান এ জেড এম ফরিদুজ্জামানের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে (ধানের শীষ) ব্যাপক ভাংচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে লোহাগড়া বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ আসনে ফরিদুজ্জামানের প্রতিদ্বন্দ্বী হলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। এ হামলায় অন্তত চার নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেন ফরিদুজ্জাামান। তিনি বলেন, লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হাসানের নেতৃত্বে আমাদের নির্বাচনী অফিসে হামলা চালানো হয়। অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে অফিসের চেয়ার, টেবিল, ফ্যানসহ অন্যান্য আসবাবপত্রের ব্যাপক ক্ষতি করা হয়েছে। এদিন বিকেলেই এখানে কর্মীসভা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।
এ ঘটনায় ফরিদুজ্জাামান ওইদিন বিকেলে তার লোহাগড়ার বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আকরামুজ্জামান মিলু, নেওয়াজ আহমেদ ঠাকুর নজরুল, মোহাম্মদ হোসেন মহত, কাজী সুলতানুজ্জমান সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম ফেরদৌস রহমান, সহ-প্রচার সম্পাদক সৈয়দ আব্দুস সবুর, লোহাগড়া উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সালেহা বেগম, লোহাগড়া পৌর কাউন্সিলর মিলু শরীফ, লোহাগড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি নজরুল জমাদ্দার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক টিপু সুলতান, লোহাগড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহিন বিপ্লব, লোহাগড়া পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান রিকাত, লোহাগড়া আদর্শ কলেজের সাবেক ভিপি শফিকুল ইসলাম সবুজ, লোহাগড়া উপজেলা যুবদলের সভাপতি মাহমুদুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক আহাদুজ্জামান, এনপিপির কেন্দ্রীয় নেতা শরীফ মুনীর হোসেন, বদরুল ইসলাম, বেলাল হোসেন প্রমুখ।
এদিকে ছাত্রলীগ নেতা রাশেদ তার বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন।