বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের সহধর্মিনী ফজিলাতুন্নেছার ইন্তেকাল

31

নড়াইল কণ্ঠ : বীরশ্রেষ্ঠ ল্যান্স নায়েক নূর মোহাম্মদ শেখের সহধর্মিনী ফজিলাতুন্নেছা বুধবার সন্ধ্যায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহিৃ..রাজিউন)।
মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। তিনি দুই মেয়েসহ নাতী নাতনি ও আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।
ফজিলাতুন্নেছার নাতি জামাই মুন্সী আসাদুর রহমান জানান, ফজিলাতুন্নেছা ডায়াবেটিসসহ জটিল রোগে ভুগছিলেন। সম্প্রতি তাকে চিকিৎসার জন্য নড়াইল থেকে ঢাকা বিজিবি পরিচালিত হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়। কিন্তু অবস্থার পরিবর্তন না হলে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইস) ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
এদিকে বীরশ্রেষ্ঠ ল্যান্স নায়েক নূর মোহাম্মদ শেখ এঁর সহধর্মিনী ফজিলাতুন্নেছার মৃত্যুতে নড়াইল জেলা প্রশাসক ও ‘ল্যান্স নায়েক বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্মৃতি পাঠাগার ও যাদুঘর এঁর সভাপতি আনজুমান আরা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম, বীরমুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এসএ মতিন, ‘ল্যান্স নায়েক বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্মৃতি পাঠাগার ও যাদুঘর এঁর সদস্য সচিব, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ মোহাম্মদ মহাবিদ্যালয়ের’ ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও চন্ডিবরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আজিজুর রহমান ভূঁইয়া মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
মরহুমার প্রথম নামাযে জানাযা আজ বৃহস্পতিবার (২২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টায় পিলখানায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখান থেকে সড়ক পথে মরদেহ এনে নড়াইল শহরের কুড়িগ্রামের বাসভবনে রাখা হবে। বাদ আছর মরদেহ নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ মাঠ সুলতান মঞ্চে নেয়া হবে। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর নেয়া হবে নূর মোহা্ম্মদ নগরে‘ল্যান্স নায়েক বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্মৃতি পাঠাগার ও যাদুঘর মাঠ প্রাঙ্গনে। এখান থেকে নেয়া হবে ধুড়িয়া গ্রামে। এখানে পারিবারিক কবরস্থানে মেয়ের কবরের পাশে দাফনকার্য সম্পন্ন করা হবে।