নড়াইলে ‘সরকারি আইনি সেবার সাফল্য’ প্রচারে মিডিয়ার ভূমিকা বিষয়ক কর্মশালা

39

নড়াইল কণ্ঠ :‘উন্নয়ন আর আইনের শাসন এগিয়ে চলছে দেশ লিগ্যার এইডের সুফল পাচ্ছে সারা বাংলাদেশ’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে উন্নয়নের অগ্রযাত্রায়, সরকারি আইনি সেবার সাফল্য -প্রচার ও প্রসারে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার ভূমিকা বিষয়ক কর্মশাল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
নড়াইল জেলা লিগ্যার এইড এর আয়োজনে সোমবার (১৯ নভেম্বর) বিকাল সাড়ে ৪টায় জেলা জজ আদালত ভবনের সম্মেলন কক্ষে জেলা ও দায়রা জজ শেখ আবদুল আহাদ এর সভাপতিত্বে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ হাদিউজ্জামান, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আবু বক্কও সিদ্দিক, সিনিয়র সহকারি জজ তাকিয়া সুলতানা, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যািেজস্ট্রেট জাহিদুল আজাদ, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যািেজস্ট্রেট মরসেদুল আলম, জুডিসিয়াল ম্যািেজস্ট্রেট নয়ন বড়াল, জুডিসিয়াল ম্যািেজস্ট্রেট হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বাকাহীদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: শরফুদ্দিন, নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর সিদ্দিকী, নড়াইল কণ্ঠ সম্পাদক কাজী হাফিজুর রহমান, সাংবাদিক কার্তিক দাস, অ্যাডভোকেট তারিকুজ্জামান লিটু, অ্যাডভোকেট মো: আজিজুল ইসলাম, ফরহাদ খান প্রমুখ।
কর্মশালায় জেলা লিগ্যার এইড এর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, এ বছরের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত মোট ৩ লক্ষ ৪৭ হাজার ৬৭৭জন বিচারপ্রার্থীকে সরকারি আইনি সেবা প্রদান করা হয়েছে। বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি বাস্তবায়নের মাধ্যমে ১৩ কোটি ১৭ লক্ষ ৩৯ হাজার ১৩৪ টাকা ক্ষতিপূরণ আদায় করে দেয়া হয়েছে। এর ই ধারাবাহিকতায় নড়াইল জেলা লিগ্যাল এইড অফিসের অধিনে বর্তমান চলমান মামলার সংখ্যা ২০৭৫। এ বছর ২২৪টি আবেদন জমা পড়ে। এরমধ্যে মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে ১২৫টি। মামলা পরিচালনা বাবদ আইনজীবীদেও ফি হিসেবে প্রদান করা হয়েছে ৩ লক্ষ ৮৪ হাজার ২৩০টাকা। এছাড়া বিকল্প পদ্ধতিতে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য আবেদন গৃহিত হয় ৮টি। মামলা বাদে মিমাংসার মাধ্যমে ৬৫ হাজার টাকা নগদে আদায় কওে দেয়া হয়।
তিনি আরো জানান, ঘরে বসেই বিনা খরচে শুধুমাত্র একটি ফোনকলের মাধ্যমে আইনি পরামর্শ, আইনি জিজ্ঞাসা, লিগ্যার কাউন্সিলং, মামলার প্রাথমিক তথ্যসমূহ জানার ডিজিটাল সেবা প্রাপ্তির বিষয়টি এক সময় ছিল স্বপ্নের মত। কিন্তু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৬ সালের ২৮ এপ্রির জাতীয় হেল্পলাইন ‘১৬৪৩০’(টোলফ্রি) চালু এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয়েছে। এই নম্বরে এ পর্যন্ত একচল্লিশ হাজারেরও বেশি মানুষের আইনি প্রতিকার দেয়া হয়েছে।
এসব মামলা সরাসরি, আদালত, উপজেলা কমিটি, ইউপি কমিটি, এনজিও প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন মাধ্যমে লিগ্যাল এইডের কাছে আসে। এসব মামলা পরিচালনার জন্য ৪৮ জন আইনজীবী রয়েছেন।
কর্মশালায় সরকারি কর্মকর্তা, এনজিও প্রতিনিধি, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।