অস্ট্রেলিয়ার আদালত বাংলাদেশি মা’কে জেলে পাঠাচ্ছে

117

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ায় অবৈধ আশ্রয় প্রার্থীদের জেলে পাঠানোর প্রথার বিরুদ্ধে মামলায় হেরে গিয়েছে এক বাংলাদেশি মা। শিশুসহ তাকে এখন আবার কারাগারে ফেরত পাঠানো হতে পারে। জাহাজ চড়ে যেসব অ্যাসাইলামপ্রার্থী অস্ট্রেলিয়ায় আসে তাদের সে দেশে ঢুকতে না দিয়ে কর্তৃপক্ষ প্রশান্তমহাসাগরের দুটি দ্বীপ নাউরু এবং পাপুয়া নিউ গিনিতে বিশেষভাবে তৈরি কারাগারে পাঠিয়ে দেয়।

অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম খবরে জানা যায়, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই বাংলাদেশী নারী এই ব্যবস্থার বিরুদ্ধে আদালতে চ্যালেঞ্জ করেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার হাইকোর্ট বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি)এই মামলাটি খারিজ করে দেয় এবং সরকারের অ্যাসাইলাম নীতির পক্ষে রায় হয়।

এদিকে মানবাধিকার কর্মীরা এই রায়ের সমালোচনা করে বলছেন, এখন ২০৬ জনেরও বেশি আশ্রয়প্রার্থীকে কারাগারে ফেরত পাঠানো হবে। এদের সাথে থাকবে ৫০টি শিশু, যাদের মধ্যে ৩৭টি শিশুর জন্ম হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার মূল ভূখণ্ডে।

ঐ খবরে বলা হয়েছে, এই বাংলাদেশি মহিলা বেশ কয়েক বছর আগে জাহাজে চড়ে অবৈধভাবে অস্ট্রেলিয়ায় ঢোকার চেষ্টা করে ধরা পড়েন। তাকে নাউরুতে পাঠানো হয়। সেখানে তিনি অন্তঃসত্ত্বা হলে চিকিৎসার জন্য তাকে অস্ট্রেলিয়ায় ঢুকতে দেয়া হয়। শিশুর জন্মের পর কর্তৃপক্ষ তাকে আবার নাউরুতে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করলে মানবাধিকার কর্মীদের সহায়তায় তিনি সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অস্ট্রেলিয়ার অ্যাসাইলাম নীতির প্রবল সমালোচনা থাকলেও জনমত জরিপে দেখা যাচ্ছে এই নীতির পক্ষেই জনসমর্থন বেশি।