নড়াইলে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ২৩

0
31
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

নড়াইল সদর উপজেলার মাইজপাড়া ইউনিয়নের তারাশী গ্রামে আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ ২৩ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবরা) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতদেরকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মাইজপাড়া ইউনিয়নের তারাশি গ্রামের জেলা পরিষদের সদস্য বরকত বিশ্বাসের গ্রুপের সাথে সরোয়ার মোল্যা গ্রুপের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গত বুধবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে দুপক্ষের মধ্যে একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।
বৃহস্পতিবার সকালে সরোয়ার পক্ষের ইশান সিকদার নামে এক কলেজ ছাত্র বাড়ি থেকে মাইজপাড়ায় কলেজে যাচ্ছিলেন। প্রতিপক্ষ বরকত বিশ্বাসের বাড়ির কাছে গেলে তাকে ধরে মারধর করে আহত করে।
হামলার খবরটি গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে দু’পক্ষ ঢাল, সড়কি, রামদা, ইটপাটকেলসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রাদি নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।
ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়াসহ আধা ঘণ্টাব্যাপি রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ২৩জন আহত হয়।
এদের মধ্যে গুরুতর আহত জান্নাতী বেগম (২৮), রুবিয়া বেগম (৩৫), তারিকুল ইসলাম (৪০), মঞ্জুর মোল্যা (৩৫), রবিউল মোল্যা (৪৫), আলী আহম্মেদ (৫০), এরশাদ মোল্যা (৩০), রজিবুল (৩২), মুনসুর মোল্যা (৩০), ফিরোজ (৫৫) ও মিশাল(৩৫), মিঠু মোল্যা (৪০), তৌহিদুর (৪৫), নূর ইসলাম (৪০), নিশান (১৭)সহ বেশ কয়েকজনকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, এলাকায় সামাজিক বিরোধের জের ধরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। প্রাথমিকভাবে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। তবে তাদের সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here