” বাংলাদেশ ” শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় , জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল নির্বাচন

0
10
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী শুক্রবার (১২ অক্টোবর)। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শেষ মুহূর্তের প্রচারণা চালাচ্ছে বাংলাদেশ। জেনেভা ভিত্তিক এই সংস্থার এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে সদস্য হওয়ার জন্য নির্বাচন করছে বাংলাদেশ।
সংশ্লিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, নিউ ইয়র্কে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনটি বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান এবং মিয়ানমারের মানবাধিকার লঙ্ঘন বিষয়ে অত্যন্ত সোচ্চার জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিল। নির্বাচিত হতে পারলে রোহিঙ্গা ইস্যুটি আরও জোরালোভাবে জাতিসংঘে উপস্থাপন করতে পারবে বাংলাদেশ।
২০১৯-২১ সালের মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হতে জাতিসংঘের সদস্যভূক্ত ১৯৩টি দেশের মধ্যে দুই-তৃতীয়াংশের সমর্থন প্রয়োজন হবে বাংলাদেশের। এর আগে বাংলাদেশ ২০০৭-০৯, ২০১০-১২ এবং ২০১৫-১৭ মেয়াদে নির্বাচিত হয়েছিল।
এ ব্যাপারে নিউ ইয়র্কে অবস্থানকারী জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘আমরা নির্বাচিত হওয়ার বিষয়ে আশাবাদী। গত মেয়াদে আমরা নির্বাচিত হয়েছিলাম এবং আশা করছি এবারও আমরা নির্বাচিত হবো।’
রোহিঙ্গা সমস্যার ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘এটি মিয়ানমারের এবং তার অধিবাসীদের সমস্যা এবং এখানে বাংলাদেশ জড়িত হয়েছে। কারণ, এই নিপীড়িত লোকদের আশ্রয় দেওয়ার জন্য ঢাকা তার সীমান্ত খুলে দিয়েছে। আমরা এই সমস্যা সমাধানের জন্য সবার সঙ্গে কাজ করবো কিন্তু এর উৎপত্তি মিয়ানমারে এবং এর সমাধানও করতে হবে মিয়ানমারকে’
তিনি আরও বলেন, ‘এর আগে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফেরত গেছে এবং আবার পালিয়ে এসেছে কিন্তু এবার আমরা এর চিরস্থায়ী সমাধান চাই।’
উল্লেখ্য, গত ২৭ সেপ্টেম্বর মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তদন্ত করার উদ্যোগ নিয়েছে মানবাধিকার কাউন্সিল। এর আগে জাতিসংঘ ফ্যাক্ট-ফাইন্ডিং মিশন তার পূর্ণ তদন্ত রিপোর্ট দিয়েছে, যেখানে তারা উল্লেখ করেছে- রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সেনাদের গণহত্যা চালানোর অভিপ্রায় ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here