‘বাংলাদেশকে সহযোগিতা করছে তুরস্ক’

0
15
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে তুরস্ক সহযোগিতা করছে।
তুরস্ক, কানাডা, সৌদি আরব, জাপান, ওমান, ব্রাজিল, ইথিওপিয়া, ভারত, ফিলিপাইন ও দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে ‘ভিজিট বাংলাদেশ ২০১৮’ প্রোগ্রাম উপলক্ষে ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ তথ্য জানান।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা তুরস্কের সমর্থন পাচ্ছি।’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিদেশি সাংবাদিকদের ব্রিফ করবেন বলে জানা গিয়েছিল। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেছিলেন, ‘পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে সাংবাদিকরা বাংলাদেশ সফরে আসছেন। এই প্রতিনিধি দলটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও যাবেন।’
সাংবাদিকদের এই প্রতিনিধি দলে ভারতের ১৬ সদস্য রয়েছেন বলেও জানা গেছে।
প্রসঙ্গত, তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম বাংলাদেশে সফরে এসে বলেছিলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে বাংলাদেশের সাথে একযোগে কাজ করবে তুরস্ক।’
গত বছরের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধন অভিযান শুরু হওয়ার পর প্রাণ বাঁচাতে প্রায় ছয় লাখ ৭২ হাজার মানুষ পালিয়ে এসে বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার টেকনাফ ও উখিয়ার শরণার্থী শিবিরগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে; যাদের ৯০ শতাংশই নারী-শিশু ও বৃদ্ধ।
ইউনিসেফের হিসাব অনুযায়ী, শরণার্থী শিবিরে বর্তমানে চার লাখ ৫০জন রোহিঙ্গা শিশু রয়েছে; যার মধ্যে দুই লাখ ৭০ হাজারই নতুন। এ সব শিশুর মধ্যে আবার অভিভাবকহীন ৩৬ হাজার ৩৭৩ শিশুও রয়েছে।
বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মধ্যে অন্তত ৫০ হাজার অন্তঃসত্ত্বা নারী রয়েছেন। পালিয়ে আসা শিশু শরণার্থীদের বাইরেও প্রতিদিন যোগ হচ্ছে প্রায় ১০০ নবজাতক।
বর্বর ওই অভিযানে দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে নির্বিচার গণহত্যা-ধর্ষণ-অগ্নিসংযোগের মতো গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো জানিয়েছে, রাখাইনে হাজার হাজার রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশুদের ওপর পরিকল্পিত আক্রমণ চালানো হয়েছে এবং এটি মানবতার বিরুদ্ধে সুস্পষ্ট অপরাধ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here