নড়াইলে ইউপি চেয়ারম্যান পলাশ হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিদের নামে চুড়ান্ত চার্জশীটের দাবিতে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন

120

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের দিঘলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক লতিফুর রহমান পলাশ হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিদের নামে চুড়ান্ত চার্জশীট প্রদানসহ দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হস্তান্তরের দাবিতে মানববন্ধন, সংবাদ সম্মেলন ও বিভোক্ষ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। দিঘলিয়া ইউনিয়নের সহস্রাধিক নারী-পুরুষ, স্থানীয় অন্যান্য নাগরিকবৃন্দ এ মানববন্ধনে অংশ নেয়।

মানববন্ধন শেষে ১১টায় একই স্থানে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান, মামলার এজহারকারি, জেলা আওয়মী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক, জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য নিহত চেয়ারম্যানের ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলু।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি জেলার সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ হাফিজুর রহমান, নিহত পলাশ চেয়ারম্যানের স্ত্রী দিঘলিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নীনা ইয়াসমিন, আওয়ামী লীগ নেতা সরদার আব্দুল হাইসহ অনেকে।

বক্তারা বলেন, এ বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১২টার দিকে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউপি নির্বাচনের জের, রাজনৈতিক ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা লতিফুর রহমান পলাশকে গুলি করে ও কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। এ ঘটনায় ১৫ জনকে আসামী করে লোহাগড়ায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু মামলার সাত মাস পার হওয়ার পরও চার্জশীট দেয়া হয়নি। এই হত্যা মামলা থেকে গুরুত্বপুর্ণ আসামিদের বাদ দেওয়ার চেষ্টা চলছে এবং মামলাটিকে দুর্বল করতে একুশের গ্রেনেড হামলার মামলার জজমিয়া নাটকের সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে তদন্তকারি কর্তৃপক্ষ। জেলার চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিদের নামে দ্রুত চার্জশীট প্রদান ও মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হন্তান্তরের দাবি জানান বক্তরা।

সংবাদ সম্মেলন শেষে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের সামনের সড়ক হতে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। বিভোক্ষপ মিছিরটি লোহাগড়া শহর প্রদক্ষিন করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।