মঈন খানের বাসায় গভীর রাতে সরকার উৎখাত ষড়যন্ত্র বৈঠক

32

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খানের গুলশানের বাসায় জাতীয় ঐক্যের নামে সরকার উৎখাতের জন্য ষড়যন্ত্রের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই গোপন বৈঠকের আগে মঈন খানের বাসায় একটি নৈশভোজে অংশ নিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটসহ অন্তত আটটি দেশের কূটনীতিকেরা। এসময় বিএনপি নেতারা বিদেশি কূটনীতিকদের কাছে সরকারের বিরুদ্ধে আবার নালিশ করেছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে রাত সোয়া ১১টা পর্যন্ত তাঁরা মঈন খানের বাসায় অবস্থান করেন। নৈশভোজে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ এবং জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রবও ছিলেন।

নৈশভোজে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জাপান, নেদারল্যান্ডস, নেপাল, ভুটানসহ বেশ কয়েকটি দেশের কূটনীতিকেরা অংশ নেন।

বিএনপির একটি সূত্র জানায়, নৈশভোজের নিমন্ত্রণে গেলেও দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলাপ হয়েছে। আগামী নির্বাচন নিয়ে কূটনীতিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন দলের নেতারা।

মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিদেশি কূটনীতিকেরা একে একে মঈন খানের বাসা থেকে বের হন। রাত ১১টার কিছু আগে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট ওই বাসা থেকে বের হন। এ সময় সাংবাদিকেরা তাঁর সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন। কিন্তু তিনি কিছু বলেননি। রাত সোয়া ১১টার দিকে বাসা থেকে বের হন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনিও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি।

মওদুদ আহমদ ওই বাসা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকেরা তাঁকে ঘিরে ধরেন। তখন তিনি বলেন, ‘আমি কিছু বলব না।’ এ সময় সাংবাদিকেরা অনুরোধ করলে, তিনি বলেন, ‘যিনি হোস্ট (নিমন্ত্রণকারী) তাঁকে ধরুন।’

সূত্র : banglanewspost.com