প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যেকোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে প্রস্তুত আলেম-ওলামারা

26

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা মিথ্যা-বানোয়াট কথা উল্লেখ করে বই লিখে সরকারকে বিব্রত করার চেষ্টা করছেন বলে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন দেশের সম্মানিত আলেম সমাজ। এদিকে সিনহার মতো লোভী মানুষ হুমকির মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন এমন অসত্য কথা বিদেশি গণমাধ্যমকে বলে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন বলে মনে করছেন ইসলামপ্রিয় জনতা।
জানা যায়, সিনহার লেখা বইটি গত ১৬ সেপ্টেম্বর, রবিবার এ্যামাজনে উন্মুক্ত করার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে বইটি প্রকাশের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হেয় করার চক্রান্তের বিষয়টি উন্মোচিত হয় আলেম-ওলামাদের কাছে। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যেকোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে প্রস্তুত বলেও একাধিক আলেম-ওলামা প্রকাশ্যে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ বেফাকের সহ-সভাপতি মুফতি ফয়জুল্লাহ মনে করেন, ‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকারে বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র হলে এদেশের আলেম-ওলামারা এই ষড়যন্ত্র রক্তের শেষ বিন্দু দিয়ে হলেও তা রুখতে লড়াই করবে। কওমী মাদ্রাসার সনদ দেয়ার মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে উদারতা দেখিয়েছেন তা যুগান্তকারী একটি পদক্ষেপ বলেও মন্তব্য করেন তিনি। একজন সত্যিকারের ঈমানদার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যার বিরুদ্ধে যেকোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করা প্রতিটি মুসলমানের ঈমানী দায়িত্ব বলেও তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।’

বৃহস্পতিবার ঢাকার জাতীয় মসজিদ বায়তুল মুকাররম উত্তর গেটে বেফাকের শুকরিয়া মিছিল পূর্ব বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কওমী সূত্র বলছে, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফী গত রমজানে মারাত্মক অসুস্থতার কারণে একটি হাসপাতালের আইসিওতে শুয়ে ছিলেন। তখন তিনি বলেন, আমি কওমী সনদের জন্য কথা বলেছি। ২০১৭ সালে একটি গেজেটও প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু তা এখনো আইনে পরিণত হয়নি। আমি কি জীবদ্দশায় তা দেখে যেতে পারব না? তিনি তার ইচ্ছার কথা জানিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি চিঠি লিখেন।

তথ্যসূত্র বলছে, তার চিঠির পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদারতায় কওমী সনদের স্বীকৃতি লাভের মধ্য দিয়ে আল্লামা শাহ আহমদ শফীর আবেদন বাস্তবতার মুখ দেখেছে। তখন থেকেই মূলত দেশের আলেমরা প্রধানমন্ত্রীকে তার আন্তরিকতাপূর্ণ অবদানের জন্য অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি তাকে নিয়ে যেকোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে প্রস্তুত বলেও একাধিক বিবৃতিতে উল্লেখ করেন।

জানা যায়, সিনহা অথবা স্বাধীনতা বিরোধীদের আলেমরা স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন যদি প্রধানমন্ত্রী কোনো ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হয়, সারা বাংলাদেশের ইসলামপ্রিয় জনতা তার পাশে থাকবে এবং দেশের জন্য আলেম- ওলামারা ভূমিকা রাখতে সর্বদা প্রস্তুত।

উল্লেখ্য, বিদেশে অর্থপাচার, আর্থিক অনিয়ম, দুর্নীতি, নৈতিক স্খলনসহ ১১ টি অভিযোগ রয়েছে সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিরুদ্ধে। এজন্য সুপ্রিম কোর্টের পাঁচজন বিচারপতি তার সঙ্গে একই বেঞ্চে বসতে পর্যন্ত চাননি। আর তার মতো এরকম একজন অনৈতিক চরিত্রের মানুষ যদি তারেক রহমান ও জামায়াতের জঙ্গি পৃষ্ঠপোষকতার অর্থ তহবিলের টাকা থেকে সরকারের বিরুদ্ধে বই লিখে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন তাহলে তা শক্ত হাতে আলেমরা রুখে দিবেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
সূত্র :banglanewspost.com