বিএনপি’র নেতারাই সম্মান করেন না দলকে, সাধারণ মানুষ কিভাবে করবে

49

১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। ৩০ এপ্রিল ১৯৭৭ সালে জিয়াউর রহমান তার শাসনকে বেসামরিক করার উদ্দেশ্য ১৯ দফা কর্মসূচি শুরু করেন। জেনারেল জিয়া যখন সিদ্ধান্ত নিলেন যে তিনি রাষ্ট্রপতির পদের জন্য নির্বাচন করবেন তখন তার নেতৃত্বে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক দল (জাগদল) প্রতিষ্ঠিত হয়।
তৎকালীন বিএনপি কোনো রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকে সৃষ্টি হয় নি। কিছু ব্যবসায়ী ও পাকিস্তানি আদর্শ বহনকারী ব্যক্তিত্বের মাধমে সৃষ্টি হয়েছে এ দল। ফলে ৪০ বছরের পুরনো দল এখনো ভুগছে সমন্বয়হীনতায়। যার কারণে অনেকটা রাগ ও ক্ষোভ থেকে উক্ত দল নিয়ে হাজার বার কটুক্তি করেছেন সেই দলেরই নেতাকর্মীরা। নেতাকর্মীদের উক্ত বক্তব্য গুলো বাংলা নিউজ পোস্টের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী সদস্য এম তরিকুল ইসলাম একবার বলেছিলেন, পিওন দারোয়ানরা এখন বিএনপি চালায়। তার এ কথায় বিএনপির বর্তমান অবস্থা স্পষ্ট হয়।
বিএনপির অপর নেতা বলেছিলেন, বিএনপি করার চেয়ে বাড়ির চাকর হওয়া ভালো। সৈয়াদা পাপিয়া বলেছিলেন, বিএনপি এখন চোর বাটপারে ভরে গেছে। জনাব এম কে আনোয়ার বলেন, বিএনপি চালায় রানী আর যুবরাজ। জনাবা শাহেদা ওবায়েদ বলেছিলেন, বিএনপি এখন কোনো রাজনৈতিক দল নয়, এটা এখন মা ও ছেলের সমিতি। জনাব নাজমুল হুদা বলেছিলেন, খালেদাকে গুরুত্ব দেবেন না। সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বেয়াদব তারেক রহমান আখ্যায়িত করেছিলেন মেজর অবঃ আক্তারুজ্জামান। কর্ণেল (অবঃ) অলি আহমেদ বলেছিলেন, বিএনপি রাজাকার নির্ভরশীল দল।
বিএনপি বা ২০ দলীয় নেতাদের উক্ত বক্তব্যই প্রমাণ করে বিএনপি কতোটা সমন্বয়হীন দল। এমন চলতে থাকলে আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই এ দল বিলুপ্ত হবে বলে ধারণা করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।