বাংলাদেশের ভূখণ্ড সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না -প্রধানমন্ত্রী

50

নড়াইল কণ্ঠ : বৃহস্পতিবার নেপালের কাঠমান্ডুতে বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আঞ্চলিক নেতাদের আশ্বস্ত করে বলেন- বাংলাদেশের মাটি সন্ত্রাসবাদীদের কাজে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। দেশ থেকে সন্ত্রাসের মূলোৎপাটনে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ’।
পনের মিনিটের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে আঞ্চলিক সহযোগিতার ওপর জোর দেন প্রধানমন্ত্রী, বলেন- জাতিসংঘ নির্ধারিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে এ অঞ্চলের প্রতিটি দেশকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।
আঞ্চলিক সহযোগিতার বিভিন্ন ক্ষেত্র উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা। এগুলোর মধ্যে রয়েছে- কারিগরি, সাংস্কৃতিক এবং যোগাযোগ। বঙ্গোপসাগরীয় দেশগুলোর মধ্যে বিদ্যুৎ খাতের সহযোগিতার উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ অঞ্চলে মুক্ত বাণিজ্য চালু, দারিদ্র্য বিমোচন, কৃষিসহ অন্যান্য খাতেও সহযোগিতা প্রসারিত করা উচিত। বাংলাদেশের অর্থনীতি উন্নতি করেছে বলে বিমসটেক নেতাদের জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী, বাংলাদেশ বর্তমানে বিশ্বের ৪৩ তম অর্থনীতি।
শেখ হাসিনা মনে করিয়ে দেন, আরও অনেক দূর যেতে হবে বিমসটেককে। বলেন, ‘প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পার হলেও আমরা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে যেতে পারিনি।’
এবারের সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, থাই প্রধানমন্ত্রী প্রয়ুত চান ওচা, মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট উন মিনট, ভুটানের অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধান উপদেষ্টা গিয়ালপো ওয়াংচুক এবং শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা।