‘কেউ যদি প্রতিষ্ঠিত হতে চায় তাহলে কোন কিছুই জীবনের জন্য বেরিয়ার হতে পারে না, যদি তার ডিটারমিনেশন থাকে’- অধ্যাপক ড. মো: আমিনুল ইসলাম

44

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের আব্দুল হাই সিটি কলেজে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন পেলেই আগামি শিক্ষাবর্ষে সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হবে।
এ উপলক্ষে শনিবার (১১ আগস্ট) দুপুরে আব্দুল হাই সিটি কলেজে অনার্স কোর্স চালু করার লক্ষ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোনীত প্রতিনিধি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো: আমিনুল ইসলাম কলেজ পরিদর্শনের কাজ সম্পূর্ণ করেছেন।
পরিদর্শনকালে অধ্যাপক ড. মো: আমিনুল ইসলাম অত্র কলেজের শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময়কালে সমগ্রহ শিক্ষক সমাজের উদ্দেশ্যে বলেন, “আপনারা হলেন স্বপ্ন বিক্রির ফেরিওয়ালা। ভারতের মিসাইল ম্যান এপিজে আব্দুল কালাম ওনার ছেলে বেলার কথা কিন্তু আপনারা সবাই জানেন। উনি কখনও চিন্তা করতে পারেননি যে উনি মিশাইলম্যান এবং ভারতের প্রেসিন্ডেট হবেন। ছাত্রদেরকে স্বপ্ন দেখাতে হবে যে, তিনি তো খুদার তাড়নায় সবগুলি রুটি খেয়ে ফেলতেন তাই না? সংবাদপত্র বিক্রি করতেন, তিনি যদি এই পর্যায় আসতে পারেন তোমরা কেন পারবে না? আতিউর রহমানের জন্য হাটে হাটে গামছা করে টাকা তোলা হতো তাই না, তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর হয়েছেন এবং শুধু গর্ভনরই নন তিনি বড়মাপের একজন অধ্যাপক। তাদেরকে উৎসহ উদ্দীপনা দিতে হবে। তাদেরকে বুঝাতে হবে যে, আব্রাহাম লিংকন বোটম্যান ছিলেন তাই না! কেউ যদি প্রতিষ্ঠিত হতে চায় তাহলে কোন কিছুই জীবনের জন্য বেরিয়ার হতে পারে না, যদি তার ডিটারমিনেশন থাকে, স্বপ্ন থাকে এবং সেই স্বপ্ন নিয়েই এপিজে আব্দুল কালাম বলেছেন, স্বপ্ন তা নয় যা মানুষ ঘুমের মধ্যে দেখে তাই না; স্বপ্ন হচ্ছে তাই যা মানুষকে ঘুমাতে দেয় না। কাজেই ছাত্রদের এই চেতনাবোধ জাগ্রত করাই হচ্ছে শিক্ষকের কাজ। উনি মনে হয় একটা গ্রন্থে তুলে ধরেছেন “ইন ডমিটেবল স্ট্রীট” সেখানে এই কথা বলেছেন, “৭ বছরের জন্য একটি সন্তান একটা বাচ্চা একটা শিশুকে আমাকে দাও, ৭ বছর পরের ঔসন্তানকে দেবতা এবং শয়তান কেই আর কোন পথে নিয়ে যেতে পারবে না”।
এদিকে কলেজের অধ্যক্ষ মো: মনিরুজ্জামান মল্লিক জানান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন পেলেই পরবর্তী শিক্ষাবর্ষে সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হবে। এ সময় কলেজের জিবি সদস্যবৃন্দ,শিক্ষকমন্ডলী উপস্থিত ছিলেন।
পরে অধ্যাপক ড. মো: আমিনুল ইসলাম সমাজ বিজ্ঞান বিভাগসহ কলেজ ক্যাম্পাস ঘুরে দেখেন।