নিরাপদ সড়কের দাবিতে যশোর ও নড়াইলে সড়কপথে শিক্ষার্থীরা

77

নড়াইল কণ্ঠ : নিরাপদ সড়কের দাবিতে নড়াইল ও যশোরে সড়কপথে নেমেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (২ আগস্ট) দুপুরে নড়াইল শহরের বয়েজস্কুলের সামনে এবং যশোর স্থানীয় প্রেসক্লাব এর সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এক মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।
এ সময় সরকারের কাছে নিরাপদ সড়কের জন্য কয়েক দফা দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। দাবিগুলো হচ্ছে- নড়াইল, শহরের ভেতর দিয়ে ভারীযানবাহণ চলাচল বন্ধ করতে হবে, বেপোরোয়া গাড়ির চালককে ফাঁসি দিতে হবে, শিক্ষার্থীদের চলাচলে বিকল্প নিরাপদ ব্যবস্থা নিতে হবে, প্রত্যেক সড়কের দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকায় স্পিড ব্রেকার দিতে হবে, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ছাত্র-ছাত্রীর পরিবারের দায়ভার সরকারকে নিতে হবে, শিক্ষার্থীরা বাস থামানোর সিগন্যাল দিলে, থামিয়ে তাদের বাসে তুলতে হবে; সারাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ ভাড়ার ব্যবস্থা করতে হবে; ফিটনেসবিহীন গাড়ি রাস্তায় চলাচল বন্ধ ও লাইসেন্স ছাড়া চালকরা গাড়ি চালাতে পারবে না; বাসে অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়া যাবে না; জেব্রা ক্রসিং দিতে হবে, ট্রাফিক পুলিশের সচেতনতা, গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায়,স্কুল-কলেজ হাসপাতালের সামনেও সকল গাড়ির স্পিড লিমিট থাকতে হবে; নিদির্ষ্ট সংখ্যক লাইসেন্সপ্রাপ্ত ইজিবাইক ছাড়া নড়াইলে রাস্তায় ইজিবাইক চলবে না; যেখানে সেখানে গাড়ি পার্ক করা যাবে না; উচ্ছৃংখল মোটরসাইকেল আরোহীদের জরিমানাসহ শাস্তি দিতে হবে।

এ সময় নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ, নড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বি এ এফ শাহীন কলেজ যশোর, যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, হামিদপুর আলহেরা ডিগ্রী কলেজ সহ দেশের বিভিন্ন স্কুল কলেজের হাজার হাজার শিক্ষার্থী নিরাপদ সড়কের দাবিতে অংশগ্রহণ করে।
মানববন্ধনে আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নিলয় রায় বাধন। এ সময় জেলা ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন, শিক্ষার্থী প্রমুখ।
এ সময় বক্তারা বলেন, শিক্ষার্থীদের ৯দফা দাবিতে আমাদের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। সেই সঙ্গে আমরা আরো কয়েকটি দফা দাবি জানাচ্ছি। প্রত্যেকটি দাবি যৌক্তিক। শিক্ষার্থীদের এসব দাবি বাস্তবায়ন করতে হবে।
এছাড়া ঢাকায় আন্দোলনরত খুদে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলার প্রতিবাদ জানান তারা।