ঝিনাইদহে সেচের অভাবে তিন হাজারহেক্টর জমির রোপা আমন শুকিয়ে যাচ্ছে

0
5
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

১২ কিমি দীর্ঘ জিকে সেচখালে পানি নেই ১০ মাস বাসা ভাড়া দিয়ে কর্মকর্তারা জেলা শহরে থাকেন
দেলোয়ার কবীর, ঝিনাইদহ : দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের খালে পানি নেই দীর্ঘ ১০ ম্সা। কৃষকরা পানির আশায় তিন হাজার হেক্টরে রোপা আমন লাগিয়ে তাকিয়ে আছেন ওপরের দিকে, কখন বৃষ্টি হয়। আর বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা মাসের পর মাস কর্মস্থলে না এসেই বেতন নিচ্ছেন, বসবাসের অনুপযোগী দেখিয়ে নিজেদের বাসা মাসিক কিস্তিতে ভাড়া দিয়ে কামিয়ে নিচ্ছেন টাকা।
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ও মনোহরপুর ইউনিয়ন এবং পৌরসভার কমপক্ষে ২০টি গ্রামের কৃষকের বু্েক এখন হাহাকার। তারা বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের কর্মকর্তাদের মিথ্যা আশ্বাসে বিশ্বাস করে রোপা আমনের চাষ করেন। কিন্তু দীর্ঘদিন পানির দেখা না পাওয়ায় ক্ষেতের কচি চারাগুলো ক্ষেতেই শুকিয়ে যেতে শুরু করেছ্ ে।
হিতামপুরের কৃষক আব্দুল মান্নান জানালেন, তিনি এবারও দুই বিঘা জমিতে রোপা আমনের চাষ করেন। কিন্তু গেল ১০ মাস সেচখালে পানি আসেনা। ১২ কিলোমিটার দীর্ঘ এস-নাইনকে নামের সেচখালটি ঘাস আর জঙ্গলে পরিপূর্ণ হয়ে গেছে বহুদিন আগেই। আটকে থাকা বৃষ্টির নোংরা পানিতে অনেকে পাটজাগ দিয়েছেন।
কৃষকরা জানালেন, তারা বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের শৈলকুপা শাখা ও উপবিভাগীয় প্রকৌশলীর অফিসে বহুবার গেলেও সেখানে কোন কর্মকর্তা আসেননা বলে অফিসের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারিরা জানিয়েছেন। তবে শাখা কর্মকর্তা (এসও)ও উপবিভাগীয় প্রকৌশলী তাদের বাসা বসবাসের অনুপযোগী দেখিয়ে ভাড়া দিয়েছেন বলে সেখানকার কর্মচারিরা নাম না প্রকাশ করার শর্তে তাদের জানান।
এস-নাইনকে সেচখাল ব্যবহারকারী কৃষক সমিতির সভাপতি ও সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মুস্তাফা আজমল মুকুল জানান, গতবছর অক্টোবরে পানি সরবরাহ শেষ হবার পর একফোটা সেচের পানিও তার এলাকার কৃষকরা পাননি। যেহেতু কর্মকর্মকর্তারা শৈলবুপায় তাদের কর্মস্থলে আসেন না, তিনি ঝিনাইদহে সংশ্লিষ্ট নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে একাধিকবার দেখা করে সেচের পানি সরবরাহের কথা বললেই তিনি অল্পদিনের মধ্যেই পানি সরবরাহ দেয়া বলে মিথ্যা আশ্বাসই দিয়ে যাচ্ছেন, আর এদিকে ক্ষেতের চারা ক্ষেতেই শুকিয়ে মরে যেতে বসেছে।
এব্যাপারে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের ঝিনাইদহের নির্বাহী প্রকৌশলী সরোয়ার জাহান সুজনের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, কুষ্টিয়ায় প্রকল্প এলাকায় একটি ব্রিজের নির্মাণ কাজের করাণে ভাটিতে পানি সরবরাহ বন্ধ রাথা হয়েছে। তবে যত দ্রুত সম্ভব তারা সেচের পানি সরবরাহের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
শৈলকুপায় কর্মরত না থেকে দুই অফিস প্রধান শাখা অফিসার সুলতান আহমেদ ও উপবিভাগীয় প্রকৌশলী রইস উদ্দিনের দীর্ঘদিন অফিসে না আসা প্রসংঙ্গে নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, এব্যাপারে তাদের চিঠি দিয়ে অফিসে না আসার বিষয়ে জানতে চাওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here