‘আটক লোককে নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযানে যাবেন না’ -চেয়ারম্যান, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন

53

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক: মাদকবিরোধী অভিযানে যাবার সময় যেন গ্রেফতারকৃত লোককে নিয়ে না যায় বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলো – এই সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। কমিশন এর চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলছেন, “এসব অভিযানের সময় মানবাধিকারের বিষয়টা দেখতে হবে। আমরা আমাদের সংবিধান,সিআরপিসি,পুলিশ এ্যাক্ট, আন্তর্জাতিক আইন এ সংক্রান্ত সবকিছু এক জায়গায় করে আমরা পুলিশ কর্মকর্তাদের বলছি যে, এগুলো পালন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে”।
এদিকে এমন এক সময় জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এ কথা বললো যে.যখন গত এক সপ্তাহের মধ্যেই বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমগুলোয় মাদকবিরোধী অভিযানের সময় কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অন্তত ৫ জন নিহত হবার খবর বেরিয়েছে।
আরেক হিসেবে দেখা যায়, গত মে মাস থেকে শুরু হওয়া দেশব্যাপী মাদকবিরোধী অভিযানে দু’শোরও বশি লোক নিহত হয়েছে।
এসব ঘটনার ব্যাপারে প্রায় সব সময়ই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে প্রায় একই রকম ব্যাখ্যা বা বর্ণনা দেয়া হয়। তাতে বলা হয়, পুলিশ মাদকবিরোধী অভিযানে কাউকে আটক করে, তার পর তাকে নিয়ে আরেক দফা অভিযানে যায়, তখন মাদকব্যবসায়ীরা গুলি ছোঁড়ে, তাতে আটককৃত ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়।
এসব ঘটনা নিয়ে বাংলাদেশের মানবাধিকার সংগঠনগুলো তীব্র সমালোচনা করেছে এবং তারা এগুলোকে বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড বলে আখ্যায়িত করে থাকে।
এ প্রেক্ষাপটেই বাংলাদেশের জাতীয় মানবাধিকার কমিশন গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়ে মাদক-বিরোধী অভিযানে না যাওয়ার সুপারিশ করেছে।
কমিশন বলছে, গ্রেফতার হওয়া কোন ব্যক্তিকে যদি সাথে নিতেই হয় তাহলে তাদের সাথে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকেও রাখতে হবে।
তথ্য সূত্র: বিবিসি।