মডরিচের হাতেই উঠলো গোল্ডেন বল

43

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক: অর্ধ কোটিরও কম মানুষের দেশ ক্রোয়েশিয়া। সেই তারাই ছিলো এবারের ফুটবল বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় চমক। রাশিয়ার পুরো একটা মাস জমিয়ে তুলেছিলো তারা। কিন্তু ফাইনালে এসে ক্রোয়েশিয়াকে হারতে হলো ফ্রান্সের কাছে। ফাইনাল হারের কথা বাদ দিলে রাশিয়া বিশ্বকাপ আসলে ছিলো ক্রোয়েশিয়ারই। দেশটিকে বিশ্বকাপে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়া লুকা মডরিচ জিতেছেন আসরের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার।
ফাইনালের আগে থেকেই আসরের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার কারা পেতে পারেন, তাদের তালিকায় নাম ছিলো মডরিচের। ফাইনালেও দলের হয়ে অসাধারণ পারফর্ম করেন তিনি। ফলে তাকে ছাড়া গোল্ডেন বল দেয়ার মতো আর কাউকে পায়নি কর্তৃপক্ষ।
গ্রুপ পর্বে নাইজেরিয়া ও আর্জেন্টিনার বিপক্ষে গোল করেছিলেন মডরিচ। যা বিশ্বকাপে তার দেশকে এনে দেয় এক অপ্রতিরোধ্য ছন্দ। যে ছন্দ আর হারায়নি তারা। বরং বিশ্বকাপ যতো সামনে এগিয়েছে, ক্রোয়েশিয়া হয়ে উঠেছে আরো অপ্রতিরোধ্য, আরো ক্ষেপাটে এবং আরো জয়ের জন্য মরিয়া।
ফাইনাল শেষে নিজ দেশের প্রেসিডেন্টের হাত থেকে গোল্ডেন বল নেন মডরিচ। দারুণ মর্যাদাপূর্ণ এই ট্রফি জিতলেও দলের ব্যর্থতা ঠিকই পোড়াচ্ছে মডরিচকে। যে কারণে গোল্ডেন বল নেয়ার সময় তার চোখে-মুখে ছিলো রাজ্যের হতাশা। ২০১৪ সালে লিওনেল মেসির যেমন হয়েছিলো, ঠিক তেমন ভাগ্য নেমে এলো মডরিচের জন্যও।
গোল্ডেন বল পাওয়ার লড়াইয়ে মডরিচের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন এডেন হ্যাজার্ড। কিন্তু হ্যাজার্ডের দল বেলজিয়াম সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিলে তার সুযোগ কমে যায় এবং শেষ পর্যন্ত সুযোগটা তার হাতছাড়াই হয়ে গেলো।
গোল্ডেন বুট জিতেছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেন। তিনি বিশ্বকাপে মোট ছয়টি গোল দিয়েছেন। ফ্রান্সের তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পে জিতেছেন আসরের সেরা তরুণ খেলোয়াড়ের পুরস্কার।