রাশিয়া বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার গোল্ডেন বুট পেলেন হ্যারি কেইন

40

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক: রাশিয়া বিশ্বকাপের পর্দা ওঠার আগে লিওনেল মেসি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, নেইমারদের সঙ্গে সম্ভাব্য গোল্ডেন বুট বিজয়ীর তালিকায় নাম ছিল হ্যারি কেইনেরও। যদিও তাকে নিয়ে তেমন একটা আশাবাদী ছিলেন না ফুটবল সমর্থকরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রাশিয়া বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার গোল্ডেন বুটটা নিজের করে নিয়েছেন ইংলিশ অধিনায়কই।
গ্যারি লিনেকারের পর দ্বিতীয় ইংলিশ ফুটবলার হিসেবে এই গৌরব অর্জন করেন কেইন। এর আগে ১৯৮৬ বিশ্বকাপে গ্যারি লিনেকার ছয় গোল করে প্রথম ইংলিশ ফুটবলার হিসেবে জিতে নিয়েছিলেন এই বুট।
বিশ্বকাপ শুরুর আগে টটেনহ্যাম হটস্পারের হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে একের পর এক গোল করে আলো কেড়ে নিয়েছিলেন কেইন। সেই ফর্ম ধরে রেখেছেন রাশিয়া বিশ্বকাপেও। শেষ ষোলোর লড়াই শেষেই কেইনের নামের পাশে যোগ হয়ে যায় ছয় গোল।
গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে তিউনিসিয়ার বিপক্ষে করেন জোড়া গোল। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে পানামার বিপক্ষে পান হ্যাটট্রিক। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে অবশ্য বেলজিয়ামের বিপক্ষে মাঠে নামেননি তিনি। আর কলম্বিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে করেন এক গোল। কেইনের এই ছয় গোলের মধ্যে মোট চারটি এসেছে পেনাল্টি থেকে।
অবশ্য কোয়ার্টার ফাইনালে সুইডেন, সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়া ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে বেলজিয়ামের বিপক্ষে মাঠে নামলেও আর গোলের দেখা পাননি কেইন। তাতে হিসাবে কোনো গরমিল হয়নি। ফাইনাল শেষেও ছয় গোল করে রাশিয়া বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় সবার উপরেই রয়েছেন তিনি।
৪ গোল করে কেইনের পেছনেই ছিলেন রোমেলু লুকাকু। কিন্তু তৃতীয় নির্ধারণী ম্যাচে বেলজিয়ামের এই তারকা ফুটবলার দুটি সহজ সুযোগ মিস করায় ফাইনালের আগেই বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুট প্রায় নিশ্চিত হয়ে যায় হ্যারি কেইনের। অবশ্য সুযোগ ছিল ফ্রান্সের অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান ও কিলিয়ান এমবাপ্পের সামনেও।
ফাইনালের আগে গ্রিজম্যান-এমবাপ্পের গোল সংখ্যা ছিল সমান তিনটি করে। ফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করলে এ দুজনের মধ্যে একজন পেয়ে যেতেন সোনালি বুট। তবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৪-২ গোলে জয়ের ম্যাচে দুজনই করেছেন একটি করে গোল। তাই তো রাশিয়া বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুটজয়ী হিসেবে কেইনকেই বেছে নেওয়া হয়।