ইনজুরি টাইমের গোলে কোস্টারিকাকে হারালো ব্রাজিল

0
23
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

ইনজুরির সময়ে মিডফিল্ডার ফিলিপ কুটিনহো ও অধিনায়ক নেইমারের দেয়া গোলে বিশ্বকাপ ফুটবলের ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ব্রাজিল ২-০ গোলে হারালো কোস্টারিকাকে। সেন্ট পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচ জিতে পূর্ণ ৩ পয়েন্ট পেল ব্রাজিল। এই জয়ে ২ খেলায় ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে উঠলো পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। টানা দ্বিতীয় হারে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিলো কোস্টারিকা। স্পস্ট ফেবারিট মাঠে নামলেও হিসেবে নির্ধারিত ৯০ মিনিটে গোলশূন্য থাকায় শেষ পর্যন্ত ইনজুরি টাইমের গোলে জিততে হলো নেইমারের ব্রাজিলকে।
সুইজারল্যান্ডের সাথে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করেছিলো ব্রাজিল। পক্ষান্তরে সার্বিয়ার কাছে এক গোলে হার ছিলো কোস্টরিকার। তাই দু’দলের জন্যই এ ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। ব্রাজিলের ৪-৩-৩ ফরম্যাটের বিপরীতে কোস্টরিকার পরিকল্পনা ছিলো ৩-৪-২-১।
৩ মিনিটে ভালো একটি সুযোগ পেয়েছিলেন ব্রাজিলের মিডফিল্ডার ফিলিপ কুটিনহো। বক্সের সামনে থেকে নেয়া তার শটবারের ওপর দিয়ে চলে যায়।
১৩ মিনিট গোলের ভালো সুযোগ পেয়ে যায় কোস্ট রিকাও। ডান প্রান্ত মিডফিল্ডার চেলসো বর্গেসকে পাস দিয়েছিলেন রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো গাম্বোয়া। কিন্তু বক্সের ভেতর ফাঁকা পোস্ট পেয়ে তা বাইরে মারেন বর্গেস।
২৬ মিনিট গোল পেয়ে গিয়েছিলো ব্রাজিল। কিন্তু ব্রাজিলের স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুসের গোলটি অফসাইডের কারনে বাতিল হয়ে যায়।
৪১ মিনিট কুটিনহোর পাস থেকে বক্সের সামনে থেকে ডান পায়ে শট নিয়েছিলেন ব্রাজিলের রক্ষভাগের খেলোয়াড় মার্সেলো। তবে ডান দিকে ঝাঁপিয়ে নিশ্চিত গোল থেকে দলকে রক্ষা করেন কোস্টারিকার গোলরক্ষক কাইলর নাভাস। ফলে প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশুন্যভাবে। এই অর্ধে ৬৭ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রাখলেও গোল করতে ব্যর্থ হয়েছে ব্রাজিল।
ম্যাচের প্রথমভাগে বল দখলের ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১০ মিনিটে কোস্ট রিকার সীমানায় আক্রমনের ঝড় বইয়ে দেয় ব্রাজিল। এসময় ব্রাজিলের ছয়টি নিশ্চিত গোল রুখে দেন কোস্ট রিকার গোলরক্ষক নাভাস।
এখানেই থেমে যাননি নাভাস। পরবর্তীতে ব্রাজিলের আক্রমনগুলোর সামনে বড় দেয়াল হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন ওই নাভাস। গেল বিশ্বকাপে টানা তিন ম্যাচে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হওয়া রিয়াল মাদ্রিদের নাভাসের কারনেই গোলের স্বাদ নিতে পারেনি ব্রাজিল। ফলে নিশ্চিত ড্র’র দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলো ম্যাচটি।
কিন্তু ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে জেসুসের যোগান দেয়া বল থেকে গোল করেন কুটিনহো। এরপর ইনজুরি সময়ের সপ্তম মিনিটে মিডফিল্ডার ডগলাস কস্তার পাস থেকে বল পেয়ে ব্রাজিলকে দ্বিতীয় গোলের স্বাদ দেন নেইমার। ফলে ম্যাচে ২-০ গোলের ব্যবধানে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল।
বিশ্বকাপে এটি ছিল দুই দলের তৃতীয় লড়াই । ১৯৯০ সালে প্রথম দেখায় ব্রাজিল জিতেছিল ১-০ গোলে। এরপর ২০০২ সালে ৫-২ গোলে জয় পায় ব্রাজিল।
আগামী ২৭ জুন মস্কোকে সার্বিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। একইদিন নিজনি নভগোরোদে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে লড়বে কোস্ট রিকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here