নড়াইলে তরুণীকে হত্যার অভিযোগ

65

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের কালিয়া উপজেলার চর জামরিলডাঙ্গা গ্রামে রোজিনা খানম (১৪) নামে এক তরুনীকে তার প্রেমিকার পরিবারের সদস্যরা হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে প্রেমিক সহতার পরিবারের সদস্যরা পালিয়েছে।
মঙ্গলবার (২৯ মে) সকালে পুলিশ স্থানীয় একটি বাগান থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।
মৃতদেহটির গলায় ফাঁস লাগানো থাকলেও তার পা ছিল মাটির ওপর দাঁড়ানো। প্রত্যক্ষদর্শীরা মনে করছেন, শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মৃতদেহটি গাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।
এলাকাবাসী জানান, রোজিনা ৮ম শ্রেণীতে পড়াশোনা করতো। তার সাথে একই গ্রামের হেজবুল বিশ্বাসের ছেলের আজিম বিশ্বাসের সাথে প্রেমজ সম্পর্ক ছিল। গত ২৭ মে রাতে প্রেমিক আজিম রোজিনার সাথে গোপনের দেখা করতে গেলে রোজিনার পরিবারের সদস্যরা টের পেয়ে প্রেমিক আজিমকে ঘরে আটকে রাখে। পরেরদিন সোমবার সন্ধ্যায় প্রেমিক আজিম কৌশলে পালিয়ে গেলে রোজিনাও তার সাথে পালিয়ে যায়।
এরপর মঙ্গলবার সকালে রোজিনাদের বাড়ির কিছুটা দুরের একটি বাগানে তার মৃতদেহ গাছের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। রোজিনার গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগানো থাকলেও মাটির সাথে তার পা মেশানো ছিল। প্রত্যক্ষদর্শীরা মনে করছেন, রোজিনাকে হত্যার পর গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।
ঘটনার পর থেকে তার প্রেমিকাসহ পরিবারের সদস্যরা পালিয়েছে। তবে প্রেমিক আজিমের পিতা হেজবুল বিশ্বাসকে স্থানীয় লোকজন ধাওয়া করলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে নিরাপদ হেফাজতে রেখেছে।
কালিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ ইকরাম হোসেন জানান, মৃত্যুর সঠিক কারণ উদঘাটনের জন্য মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় কালিয়া থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় রোজিনার প্রেমিকের পিতা হেফজু বিশ্বাসকে এলাকাবাসী ধাওয়া করলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে পুলিশী হেফাজতে রেখেছে।