নড়াইলে নৌকায় ভোট দেয়ায় সংখ্যালঘুদের নির্যাতন, প্রতিবাদে ঢাকায় মানববন্ধন

167

নড়াইল কণ্ঠ : কালিয়া পৌর নির্বাচনে ‘নৌকায় ভোট দেওয়ায়’ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়িলুট, ভাঙ্গচুর ও হামলা করা হয়েছে এমন অভিযোগ এনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি)সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘সচেতন নড়াইলবাসী’র পক্ষে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ‘শেখ হাসিনার নির্দেশে নৌকায় ভোট দেওয়া কি অপরাধ?’ ‘মুক্তির সন্ত্রাসীদের বিচার চাই’ এমন প্লেকার্ড গলায় দিয়ে মানববন্ধন হয়। মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, কালিয়া পৌরসভা নির্বাচন-২০১৫ কে কেন্দ্র করে ৯৩, নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তির সন্ত্রাসী বাহিনী সংখ্যালঘু ভোটার ও কালিয়া আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীর উপর নির্মম হামলা চালায়। তার পছন্দের স্বতন্ত্র প্রার্থীকে জেতানোর জন্য তিনি সব রকমের কৌশল কাজে লাগিয়েও ক্ষান্ত হয়নি। নির্বাচনের পর থেকে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থীকে ভোট দেয়ার কারনে তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে সংখ্যা লঘু সম্প্রদায়ের বাড়ি লুট ও ভাংচুর করে। আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করায় গণজাগরণ মঞ্চের এক সংগঠককেও হুমকি দেওয়া হয়েছে।

এসময় মানববন্ধনে অংশ নিয়ে গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক এফ এম শাহীন বলেন, কালিয়া উপজেলার সংখ্যালঘু সম্প্রদায় প্রতিনিয়ত মার খাচ্ছে। কবিরুল হক মুক্ত ‘র সন্ত্রাসী পেটুয়া বাহিনীর নির্যাতনে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০০টি পরিবার কালিয়া ছাড়তে বাধ্য হয়েছে। আওয়ামী লীগের ব্যানারে যদি একই দলের নেতাকর্মী ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায় নির্যাতিত হয়, তাহলে তারা কোথায় যাবে? আওয়ামী লীগ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজল দেবনাথ, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রর শিল্পী মনোরঞ্জন ঘোষাল প্রমুখ।

এছাড়া কালিয়া উপজেলার স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ প্রতিবাদী ওই মানব বন্ধনে অংশ নেন।