নড়াইল কারাগারে হাজতির রহস্যজনক মৃত্যু, কর্তৃপক্ষ বলছেন আত্মহত্যা

78

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইল জেলা কারাগারে আব্দুল করিম (২৬) নামের একজন হাজতির (সাজা প্রাপ্ত নয়) রহস্যজনক মৃত্যু ঘটেছে, কারা কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে অভিহিত করেছেন। নিহত আব্দুল করিম লোহাগড়া উপজেলার কোলা-দিঘলিয়া গ্রামের সরোয়ার এর পুত্র। সে দু’টি বিচারাধীন হত্যা মামলার আসামী হয়ে হাজতি হিসেবে ২০১৫ সাল থেকে নড়াইল কারাগারে ছিল। দায়িত্বে অবহেলার জন্য কারারক্ষী মাসুম বিল্লাহ সরদারকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।
কারাগার সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার (১৬মে) সকাল ৯টা ৪০মিনিটের দিকে কারাগারের অভ্যন্তরে হাসপাতাল ভবনের কলাপসিবল গেটে নিজ শরীরের শার্ট গলায় পেচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে, এসময় অন্য হাজতিরা জেল পুলিশকে খবর দিলে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে আনলে তার মৃুত্যু হয়। জেলখানায় অবস্থানরত কয়েকজন হাজতি ও কয়েদীর সাথে কথা বলে সরকারী গোয়েন্দা সংস্থায় কর্মরত কয়েকজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, ১৩ মে তারিখ হাজতি আব্দুল করিমের কাছে ঘুমের ট্যাবলেট পেয়ে তাকে পেটায় জোমাদ্দার তালেব ও একজন সুবেদার। এরপর তাকে কোর্টে হাজিরা দিতে আনা হয়। ১৪ তারিখে তাকে আবারও পেটায় ঐ দুইজন, এদিন তাকে ডান্ডবেড়ী পরানো হয়। এসময় জেলার তরিকুল ইসলাম বলে, তোদের ঔরকম পেটানোই কিছু হবে না, আমার কাছে দে এই কথা বলার পরে তাকে বেধড়ক পেটায় জেলার তরিকুল ইসলাম। ১৫ তারিখ রাতে আবারও পিটানো হয়। এ সময়ে সে অসুস্থ হলেও তাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেনি কারা কর্তৃপক্ষ।
কারাগার থেকে হাসপাতালে আনার পরে মৃত্যুর কথা বললে ও নড়াইল সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার আফতাব উদ্দিন বলেন, সকাল ১০ টার দিকে কারাগার থেকে সদর হাসপাতলে আনার আগেই আব্দুল করীমের মৃত্যু হয়েছে।
এ ঘটনায় কারাগারের জেল সুপার মো. তরিকুল ইসলাম জানান, নিজ পরনের শার্ট এ আত্মহত্যার চেষ্টা করে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ে। হাসপাতালে নেবার পরে তার মৃত্যু ঘটে। পিটানোর ঘটনা সম্পূর্ন অস্বীকার করেন তিনি। তবে আসামীর পায়ে ডান্ডাবেড়ী পরানোর কথা স্বীকার করেননি এই কর্মকর্তা।
কারাগারের ভিতরে হাজতী আব্দুল করিমকে পিটিয়ে মারা হয়েছে, এমন অভিযোগের উত্তরে জেল সুপার মোঃ মজিবুর রহমান মজুমদার বলেন, জেলখানা, থানা, এতিমখানা এগুলোতে কেউ মারা গেলে পিটানোর কথা আসে। সে অপরাধ করেছিলো তাই জেল কোড অনুযায়ী তাকে ডান্ডাবেড়ী পরানো হয়েছিলো।
উল্লেখ্য, আব্দুল করিম হত্যা মামলায় ২০১৫ সালের ২৬ ডিসেম্বর থেকে কারাগারে আছেন। তার নামে নড়াইলের নড়াগাতি এবং গোপালগঞ্জ থানায় আলাদা দুটি হত্যা মামলা রয়েছে।