Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের সন্তান নৃত্যশিল্পী নাইমুজ ইনাম নাইম ৪৭তম মহান স্বাধীনতা দিবসে গুণিজন সংর্বধনা পেয়েছেন। ৪৭তম মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ও রিয়াল মাল্টিমিডিয়ার ৪র্থ বর্ষপূতি উপলক্ষে চলচ্চিত্র ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিভিন্ন গুণি মানুষকে এ সংর্বধনা দেওয়া হয়েছে।
এ সংর্বধনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী মোজ্জামেল হক এবং প্রধান আলোচক সাবেক প্রধান বিচারপতি তোফাজ্জেল হোসেন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান, রিয়াল মাল্টিমিডিয়ার চেয়ারম্যান, অভিনেতা ডিভজল, দ্যা জিনিয়াস ডান্স কোম্পানীর চেয়ারম্যান বাঁধন লিজনসহ আরো গুণি ব্যক্তিবর্গ।
বর্তমানে নাইমুজ ইনাম কর্মরত আছেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীতে নৃত্যশিল্পী (গ্রেড-৩) হিসেবে। নৃত্যকে বাংলাদেশে আরও সমৃদ্ধ ও বেগবান করতে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে বিশ্ব দরবারে তুলা ধরতে বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের আদি নৃত্য থেকে শুরু করে বর্তমান পর্যন্ত নৃত্যর ধারা কে তুলে ধরতে তিনি কাজ করছেন। দীর্ঘ ৩০ বছর পর তরুণ প্রজন্মের নৃত্যশিল্পী হিসাবে নাইমুজ ইনাম নাইমসহ আরো ১২ জন নৃত্যশিল্পীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে। দিল্লীতে অনুষ্ঠিত তৃতীয় ইন্টারন্যাশনাল কান্ট্রি কনসেপ্ট নোট এ্যাওয়ার্ড ২০১৭ বেষ্ট পারর্ফমার নৃত্যশিল্পী (বাংলাদেশ) হিসেবে এ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেছেন তরুণ এই নৃত্যশিল্পী নাইমুজ ইনাম নাইম। সম্প্রতি ইন্টারন্যাশনাল কান্ট্রি কনসেপ্ট নোট এর কিছু ছবিতে বাংলাদেশের সম সাময়িক বিষয় বস্তু নিয়ে মডেলিং করেছিলেন তরুণ এই নৃত্যশিল্পী এবং সে সকল ছবি বিশ্বের দশটি দেশে প্রদর্শনী হয়েছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি মাননীয় মহাপরিচালক জনাব লিয়াকত আলী লাকির, দিক নির্দেশনায় বাংলার আদি নৃত্য, চর্যা নৃত্য ও বাংলার শাস্ত্রীয় নৃত্য গৌড়িও নৃত্য সহ অসংখ্য নৃত্য নাট্য প্রযোজনায় কাজ করেছেন নৃত্যশিল্পী নাইম। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যাত্রা শিল্প নীতিমালা বাস্তবায়ন ২০১২ উপলক্ষে যাত্রাপালা থেকে অশ্লীল নৃত্য দূরীকরণ এবং সুষ্ঠ সমৃদ্ধ নৃত্য পরিবেশনের মাধ্যমে যাত্রার মানকে আরো উন্নত করতে যাত্রার নিবন্ধন করা নৃত্য শিল্পীদের নৃত্যের প্রশিক্ষন প্রদান করেছেন তরুণ এই নৃত্যশিল্পী। সম্প্রতি সিঙ্গপুর.তুরস্ক.ভারত সহ আরো অনেক দেশে
বাংলাদেশ হাইকমিশন সহ বিভিন্ন উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সংস্কৃতি অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেছেন তিনি । সকলের যৌথ প্রচেষ্টার মাধ্যমে বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে তরুণ প্রজন্মের শিল্পীরা। বাংলাদেশের নৃত্য একদিন রোল মডেল হবে বিশ্বদরবারে।