মাশরাফির অনুপস্থিতিই বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গ : প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

0
75
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : জয়ের জন্য চাই ১ বলে ৫ রান। কাভারের উপর দিয়ে চোখ ধাঁধানো শটে বাউন্ডারি পার করে সতীর্থদের বাঁধভাঙা উল্লাসের মধ্যমণি বনে যান কার্তিক। হতাশার সাগরে ডুব দেয় বাংলাদেশ। টাইগারদের ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের অধরা স্বপ্নপূরণের অপেক্ষাটাও বাড়লো। গত রবিবার (১৮ মার্চ) কলম্বোতে টানটান উত্তেজনাপূর্ণ শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালের শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ভারতকে ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজের শিরোপা এনে দেয় দিনেশ কার্তিক।
বাংলাদেশের এ পরাজয় নিয়ে বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়া ফেইসবুক, টুইটরে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। গতকালের খেলা প্রমান করে মাশরাফির অনুপস্থিতিই বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গ হলো। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্রিকেট প্রেমিরা বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
বকুল চৌধুরী নামের এক ক্রিকেট প্রেমি তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে মন্তব্য করে বলেছেন, যতোটা হেরে কষ্ট পেলাম, তার চেয়ে অধিক কষ্ট পেলাম তোমার (মাশরাফি) অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশ হেরে যাওয়া। মানুষের দীর্ঘশ্বাস বড় খারাপ জিনিস। অনাকাঙ্খিত টি-২০ থেকে বিদায় নেয়া ১৬ কোটি মানুষের হৃদয়ের ও মনের মানুষ ম্যাশ তুমি। ১৬ কোটি মানুষের দীর্ঘশ্বাস জড়িয়ে আছে তোমার এই অনাকাঙ্খিত বিদায়ে। আজ আমি বলবো, শুধু তুমি থাকলে এই অহংকারী ভারতকে দুমড়ে মুচড়ে নিদহাস চ্যাম্পিয়নস ট্রফি তোমার হাতে উঠতো এটা আমার বিশ্বাস। আর সারা বিশ্বের সাথে সাথে আমরাও দেখতে পেতাম আর গর্ব করে বলতাম…..! ম্যাশের বিকল্প শুধুই ম্যাশ। ভালোবাসা অবিরাম,এগিয়ে যাও। বাংলার আপামর জনসাধারনের হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা তোমার তরে ছিলো আছে এবং থাকবে ইনশাল্লাহ্।
একই মাধ্যমে নীল কষ্ট নামের একজন ক্ষোভের সাথে বলেছেন, আবাল মার্কা ক্যাপ্টেন সাকিবাল হাসান……!!! শেষ ওভার কোনদিন অনিয়মিত বলার দিয়ে কেউ করায় নাকি!! মিরাজ এক ওভারে ১৭ রান দিছে তো কি হইছে রহিত শর্মা মারছে বলে সবাই মারবে নাকি? রুবেল খারাপ করেছে এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু কোন আক্কলে শেষ ওভার সৌম্য সরকারের উপর নির্ভর করলো আল্লাহ মালুম। এই ছাগলরে ক্যাপ্টেনসি দিছে কোন আবালে…! এর ক্যাপ্টেন্সির কোন জ্ঞানই নাই। ছাগুল মার্কা ক্যাপ্টেন ছাকিব আর রুবেল সাথে সৌম্যের জন্যই ম্যাচটা হারলাম।
হুমাইয়ারা হক মন্তব্য করেছেন, সবাই আসল কথাটা বলছেন না। আসলটা হল মাশরাফি থাকলে রুবেলের শেষ ওভারটায় প্রতিটা বলে তাকে পরামর্শ দিত এবং সেটা কাজে লাগতো এতো মার খেত না।
নোমান রাজু বলেন, ভাইয়া (মাশরাফি) কখনোই ফিরবেনা আর টি- টুয়েন্টিতে।
আমরা সম্মান দিতে পারিনি মানুষটাকে আজ এইরকম কিছু পাওনা আমাদের ভাগ্যেই ছিল, হয়তোবা আরও আছে।
নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম অনিক তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে বলেছেন,অনেক দিনের চাপানো কথাগুলি আজ প্রকাশ না করে পারছিনা, বাংলাদেশের এযাবৎ কালের শ্রেষ্ঠ ক্রিকেট অধিনায়ক কে? একটা শিশুও এর উত্তর জানে, বাংলাদেশের BPL এর সবচেয়ে সফল অধিনায়ক কে? একটা পাগলও জানে, অসংখ্য ইনজুরির কারনে কে বাধ্য হয়ে TEST খেলা ছেড়েছে যাতে করে বেশিদিন সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলে দেশের জন্য সম্মান এনে দিতে পারে? কার উপস্থিতি সমস্ত খেলোয়াড় ও দর্শকদের সবচেয়ে উজ্জীবিত করতে পারে? কে এখনও T20 তে অন্যতম Economy বোলার এবং কে এখনও স্লগ ওভারে সবচেয়ে হার্ড হিটার ও জনপ্রিয় ব্যাটসম্যান? এত কিছুর পরেও নীতিনির্ধারক দুই একজন যাদের অনেকেই আবার জীবনে ক্রিকেটর ব্যাটও ধরেনি, তারা যখন, অধিনায়ক হিসেবে বিশেষ কাওকে খুশী করার জন্য নানা অজুহাত দাড় করানোর চেষ্টা করেন, এরা এদেশের কোটি কোটি মানুষের আবেগের সাথে প্রতারনা করছে কিনা সে প্রশ্ন সবার কাছে???
যে দেশের সর্বসেরা কালেরসেরা অধিনায়ক হিসেবে এখনও প্রমান দিয়ে যাচ্ছে, যে এদেশের মানুষের কাছে দেশপ্রেমের প্রতীক, যাকে নিজেকে ফিট রাখার জন্য প্রতিদিন অসহ্য যন্ত্রণা সহ্য করে থেরাপি নিতে হই, আপনারা দেখছেন তাকে নিয়ে বারে বারে বলা হচ্ছে T20 খেলতে পারে কিন্তু একবারও বলা হচ্ছে না অধিনায়ক হয়ে ফিরতে অথচ চোখের সামনে আমরা অসহাই হয়ে হারছি তো হারছি, পাচ্ছি না যোগ্য অধিনায়ক।
সব ভালো প্লেয়ার যে ভালো অধিনায়ক হবে তা না, জ্বলন্ত উদাহরন সচিন টেনডুল্কার, অধিনায়ক ছিলেন না, কিন্তু তাতে তাঁর সম্মান একটুও কমেনি, আমাদের নীতি নির্ধারকরা হয় বিষয়টি নিজেরা বোঝে না বা বোঝাতে সক্ষম না। যে ক্রিকেট নিয়ে সমগ্র দেশের মানুষ এত আবেগি ও উৎফুল্ল সেখানে এক্সপেরিমেন্ট করার কোন সুযোগ থাকা উচিত না।
আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামন করছি, আশা করি কালকের হারের পরে উনিও বিষয়টি অনুধাবন করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here